করোনাকালীন সময়ে জিপিএইচ ইস্পাতের বিনা মূল্যে অক্সিজেন বিতরণ মানবিকতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্তঃ জেলা প্রশাসক

‘’করোনাকালীন সময়ে জিপিএইচ ইস্পাত বিভিন্ন হাসপাতালে রিফিল পদ্ধতিতে যে বিনা মূল্যে অক্সিজেন দিয়েছে তা এক মানবিক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে’’, গত ৬ মে ২০২১ বিকেলে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোমিনুর রহমান সীতাকুন্ডের কুমিরাস্থ জিপিএইচ এর ইলেকট্রিক কোয়ান্টাম আর্ক ফার্নেস প্রযুক্তিসম্পন্ন অত্যাধুনিক প্ল্যান্ট পরিদর্শনকালে এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

জেলা প্রশাসক জিপিএইচ কর্তৃক ২০২০ সালে ফার্স্ট ওয়েভে জেলা প্রশাসন ও সিভিল সার্জনের মাধ্যমে ১০০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রথমবারের মতো প্রত্যন্ত উপজেলা সমূহ, ফিল্ড হাসপাতাল ও বিভিন্ন হাসপাতালে বিতরণের কথা স্মরণ করেন। তাছাড়া অতি সম্প্রতি সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল, মা ও শিশু হাসপাতালে এই পরিসেবা অব্যাহত রাখার জন্য তিনি এটিকে মানবিক মূল্যবোধের উজ্জ্বল দৃস্টান্ত বলে উল্লেখ করেছেন।

পরিদর্শনকালে জিপিএইচ ইস্পাতের বিশ্ব সেরা প্রযুক্তি দ্বারা উৎপাদিত বিলেট চীনে রপ্তানীর কথা অবহিত করা হয়। সাথে সাথে বাংলাদেশের বৃহত্তম অক্সিজেন প্লান্টের  উৎপাদন ক্ষমতা সম্পর্কে ও জানানো হয়।

এই সময় জিপিএইচ গ্রুপ চেয়ারম্যান ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমরা করোনাকালীন সময়ে চীনের মতো উন্নত দেশে ৪র্থ বারের মতো বিলে্ট রপ্তানী করছি।

অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ আলমাস শিমুল বলেন, ‘’সবার উপরে মানুষ সত্য’’ –এই মন্ত্রে আমরা অক্সিজেন বিতরণ করছি। প্রয়োজনে ইন্ডাস্ট্রিয়াল উৎপাদন বন্ধ করে শুধু তরল উৎপাদন ৩ গুণ বৃদ্ধি করে সরবরাহ করা হবে।

পরিদর্শনকালে আরও উপস্থিত ছিলেন সীতাকুন্ড উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায়, জিপিএইচ ইস্পাতের নির্বাহী পরিচালক (ইএন্ডবিডি) কামরুল ইসলাম, মিডিয়া এডভাইজার ওসমান গণি চৌধুরী, চিফ পিপল অফিসার শারমিন সুলতান, সহকারী কমিশনার ইঞ্জিনিয়ার প্রণব কুমার বিশ্বাস, হোসাইন রহমান, প্রতীক গুপ্ত, আবদুল্লাহ আল মাহমুদ, রাশেদুল ইসলাম (সীতাকুন্ড), নুরজাহান আকতার সাথী (স্থানীয় সরকার) এবং প্রটোকল অফিসার মাসুদ রানা এনডিসি।

জিএম প্ল্যান্ট ড. এ এস সুমন প্ল্যান্ট সম্পর্কে ও এয়ার সেপারেশন ইউনিটের সিনিয়র ডিজিএম ইঞ্জিনিয়ার নাজমুল ইসলাম অক্সিজেন প্ল্যান্টের বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত দেন।

EVENTS & PUBLICATIONS

Website Design & Hosting for GPH Ispat is provided by alpha.net.bd